মেনু নির্বাচন করুন

শ্রী শ্রী নববৃন্দাবন গোপাল মন্দির

মানুষ যখন বিপথগামী হয়েছে অর্থ্যা ধর্ম বিমুখ অশুভ শক্তি যখনই আধিপত্য বিস্তার করেছে তখনই ঈশ্বর অবতার হয়েছেন অথবা মহা পুরুষদের আগমন ঘটিয়েছেন। দুস্কৃতিকারীদের বিনাশ সাধুদের পরিত্রাণ ও ধর্মরক্ষার জন্য এমনি এক অন্ধকারাচ্ছন্ন কলি যুগের এক মুহূর্তে নবদ্বীপ অবতার রূপে অবর্তীণ হয়ে ছিলেন শ্রী কৃষ্ণ চৈতন্য গৌরাঙ্গ মহা প্রভু।  তিনি এসেছিলেন বাংলাদেশের এই “শ্রীহট্র” বিভাগের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ গ্রামে। তিনি ভাসিয়ে তুলে ছিলেন শ্রী কৃষ্ণ প্রেম দিয়ে সব ভক্তবৃন্দকে। আর এমনই কলি সন্ধ্যায় আমাদের মধ্যে আবির্ভূত হয়েছেন শ্রী কৃষ্ণ চৈতন্য গৌরাঙ্গ মহাপ্রভু আর্শিবাদ পুষ্ট চূড়ামনি দেব নাথ ও অনিমা রানী নাথ এর কনিষ্ট পুত্র কৃপাশ্রী মূর্তি/শ্রী মিন্টু চন্দ্র দেব নাথ। যাহার পৈতৃক ভিটে এই শ্রীহট্রে জেলার, গোলাপগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণভাগ (রাম্পা) গ্রামে।